ভোলাহাট সীমান্তে বাংলাদেশীকে নির্যাতনের প্রতিবাদে বিজিবি-বিএসএফ পতাকা বৈঠক

35

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ভোলাহাট উপজেলার পোলাডাঙ্গা সীমান্তে বাংলাদেশ-ভারতের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিবি-বিএসএফের মধ্যে ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক পর্যায়ে পতাকা বৈঠকে ওই সীমান্তে এক বাংলাদেশী নির্যাতনের প্রতিবাদ করেছে বিজিবি। তবে বিএসএফ সে অভিযাগ অস্বীকার করেছে।
বিজিবির আহবানে পোলাডাঙ্গা সীমান্তে ২০১/৩৮-এস নম্বর সীমান্ত পিলার এলাকায় বাংলাদেশের বজরাটেক নামক স্থানে বুধবার সকাল ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে ৫ সদস্যের বাংলাদেশ পক্ষের নেতৃত্ব দেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ ৫৯বিজিবি ব্যাটালিযনের অধিনায়ক লে.কর্ণেল রাশেদ আলী। আর ৬ সদস্যের ভারতীয় দলের নেতৃত্ব দেন ৮২বিএসএফ ব্যাটালিয়ন কমান্ড্যান্ট শ্রী অনিল আর কে টিগগা।
বৈঠক শেষে ৫৯বিজিবি ব্যাটালিযনের অধিনায়ক লে.কর্ণেল রাশেদ আলী জানান, গত ৪ অক্টোবর বাংলাদেশের নাগরিক ভোলাহাট উপজেলার ফেন্সিবাজার গ্রামের জামাল উদ্দিনের ছেলে ইয়াসিন আলীকে (৩২) আদমপুর বিএসএফ ক্যাম্পের সদস্য কর্তৃক আটক ও মারধর করে মারাত্মক জখম অবস্থায় ২০১/১৩-এস নম্বর সীমান্ত পিলারের নিকট তাকে ফেলে যাওয়ার ঘটনার প্রতিবাদ করা হয়। তবে ৮২বিএসএফ ব্যাটালিয়ন কমান্ড্যান্ট শ্রী অনিল আর কে টিগগা ঘটনার সাথে তাদের সম্পৃক্ততা অস্বীকার করেন। ভবিষ্যতে এ ধরনের ঘটনা পরিহারকল্পে আরো বেশী সতর্কতা অবলম্বনের আশ্বাস দেন তিনি। এছাড়াও বৈঠকে সীমান্তে বসবাসরত নিরীহ জনসাধারনের উপর ভবিষ্যতে অন্যায়ভাবে গুলিবর্ষন ও নির্যাতন না করা, চোরাচালান ও মাদকদ্রব্য পাচার প্রতিরোধ, অবৈধ অস্ত্র-গোলাবারুদ ও বিস্ফোরক পাচার প্রতিরোধ করা এবং সমন্বিত টহল পরিচালনার বিষয়ে সৌহাদ্যপূর্ণ পরিবেশে আলোচনা হয় বলে জানিয়েছেন বিজিবি ৫৯ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লে.কর্ণেল রাশেদ আলী ।
উল্লেখ্য, গত ৪ অক্টোবর মঙ্গলবার রাত ৩ টার দিকে সীমান্তে প্রবাহিত মহানন্দা নদীতে মাছ ধরতে গিয়ে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের নির্যাতনের শিকার হয় ভোলাহাট উপজেলার ফেন্সিবাজার গ্রামের জামাল উদ্দিনের ছেলে ইয়াসিন আলী।

LEAVE A REPLY