রহনপুরে হয়ে গেল পিঠা উৎসব

4

চাঁপাইনবাবগঞ্জে গোমস্তাপুর উপজেলার রহনপুর বাবুরঘোন মহল্লায় শনিবার হয়ে গেল গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য দিনব্যাপি পিঠা উৎসব।
প্রতি বছরের ন্যায় এবারো এই উৎসবের আয়োজন করেন উত্তর রহনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা মমতাজ বেগম। এলাকার ছাত্র-ছাত্রীরা মাঠ থেকে সংগ্রহ করা তিন কেজি করে ধান তাদের প্রিয় শিক্ষিকাকে দিয়ে এ উৎসবে অংশ নেয়। শতাধিক ছাত্র-ছাত্রী ও এলাকাবাসী উৎসাহী হয়ে এ পিঠা উৎসবে অংশ নেয়। লাল-হলুদ শাড়ি, কাঁচা ফুলের মালা পরে ছাত্র-ছাত্রীসহ সকল বয়সের নারী-পুরুষ সারাদিন পিঠা তৈরি ও নাচে-গানে মেতে উঠে। গ্রাম বাংলার ঢেঁকি ও যাঁতার শব্দ শুনতে পাওয়া যায়। ছেলে মেয়েদের সংগহ করা ধান থেকে ঢেঁকি ছাঁটা চাল যাঁতায় তৈরি করা আটা দিয়ে হরেক রকমের পিঠা-পুলির স্বাদ নিতে আসেন অনেকে। আবার প্যাকেট করে সমাজের গণ্যমান্য ব্যক্তিদের বাসায় পৌঁছে দেয়া হয় পিঠা। গ্রামের এ ঐতিহ্যকে উৎসাহ যোগাতে ছুটে আসে রাজনৈতিক নেতারাও।
এ ব্যাপারে শিক্ষিকা মমতাজ বেগম জানান, তার নানা-নানীরা বহুযুগ ধরে বিভিন্ন ধরনের পিঠা-পুলি বানিয়ে গ্রামের কৃষাণ-কৃষাণীদের দাওয়াত করে খাওয়াতেন। সেই ঐতিহ্যকে ধরে রাখতে প্রতিবছর গ্রামের ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে উৎসবটি পালন করে হয়। তাকে এ কাজে সহযোগিতা ও উৎসাহ যুগিয়েছেন বড়বোন কলেজ শিক্ষিকা শামিমা আখতার ও এলাকার কৃষাণীরা। বিকেলে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, সাবেক সংসদ সদস্য জিয়াউর রহমান, অবসরপ্রাপ্ত কৃষি কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম, রহনপুর ইউসুফ আলী কলেজের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক সাদিকুল ইসলাম প্রমূখ। পরে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করা হয়।

Comments
Loading...