শিশু মালিহা ও সুমাইয়া হত্যা মামলায় এক নারীর মৃত্যুদন্ড

4

চাঁপাইনবাবগঞ্জের চাঞ্চল্যকর শিশু মালিহা ও সুমাইয়া হত্যা মামমলায় লাকি খাতুন নামে এক নারীকে মৃত্যুদন্ড ও অপর একজনকে ৩ বছরের সশ্রম কারাদন্ডরে এদশ দিয়েছে আদালত। রোববার দুপুরে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ শওকত আলী আসামীদের উপস্থিতিতে এই রায় ঘোষণা করেন।
মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত আসামী হলো, চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর এলাকার নামোশংকরবাটি ফতেপুর মহল্লার ইব্রাহিম আলীর স্ত্রী লাকি খাতুন এবং অপর আসামী আঙ্গারিয়াপাড়া গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে জুয়েলার্স ব্যবসায়ী মিজানুর রহমান।
মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানাযায়, পৌর এলাকার নামোশংকরবাটি ফতেপুর মহল¬ার আব্দুল মালেকের শিশু কণ্যা মালিহা ও মিলন রানার শিশু কণ্যা সুমাইয়া আক্তার মেঘলা ২০১৭ সালের ১২ ফেব্রুয়ারী স্কুল শেষে বাড়ির সামনে খেলাধূলা করার সময় নিখোঁজ হয়। দুই দিন পর একই এলাকার লাকী খাতুনের ঘরের খাটের নীচে বস্তাবন্দী অবস্থায় মালিহা ও সুমাইয়ার মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।
আদালতে ১৬৪ ধারায় দেয়া জবানবন্দীতে আসামী লাকি খাতুন দুই শিশুর গলায় থাকা স্বর্ণালঙ্কারের লোভে তাদের স্বাসরোধ করে হত্যার কথা স্বীকার করে। এছাড়া লাকী খাতুনের দেয়া তথ্যানুযায়ী জুয়েলার্স ব্যবসায়ী মিজানুর রহমান পলাশের কাছ থেকে স্বর্ণালংঙ্কার উদ্ধার করে পুলিশ। ২০১৭ সালের ৩০ এপ্রিল আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক চৌধুরী জোবায়ের আহম্মেদ।
মামলায় সরকারি পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর এ্যাডভোকট আঞ্জুমান আরা এবং আসামী পক্ষে ছিলেন এ্যাডভোকেট সাদরুল আমীন।

Comments
Loading...