1. admin@chapaisangbad.net : কপোত নবী : কপোত নবী
  2. kapotnabi17@gmail.com : Kapot Nabi : Kapot Nabi
News Headline :
মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ করলেন শিবগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মনিরুল রাজশাহী সাংবাদিক ঐক্য পরিষদকে কুটুক্তি করায় আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত চাঁপাইনবাবগঞ্জে করোনা সংক্রমণের হার নিম্নমুখী না হওয়ায় বিশেষ বিধিনিষেধ আরও ৭ দিন আধিপত্য বিস্তারের জের ধরে মহারাজপুরে দু’পক্ষের ককটেলবাজী ॥ এলাকায় আতংক চাঁপাইনবাবগঞ্জে ১০ লাখ টাকার চিকিৎসা সামগ্রী দিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য জাবীন মাহবুব চাঁপাই সংবাদে গণ্যমাধ্যম কর্মীর ডায়েরি – আজ মনোয়ার হোসেন জুয়েল-১ শিয়ালমারা ও সোনামসজিদ সীমান্তে ভারতীয় রুপিসহ ও ইয়াবাসহ হোটেল মালিকসহ আটক-২ দৈনিক চাঁপাই দর্পণ ও দর্পণ টিভি পরিবারের পক্ষ থেকে তাজকির-উজ-জামানকে বিদায় সংবর্ধনা ২০ কেজি গাঁজা নিয়ে শিবগঞ্জের ২ যুবক আটক – র‌্যাব-৫ মোল্লাপাড়া ক্যাম্প
শিবগঞ্জে সরকারি গাছ বিক্রি- সরকারি গাছ কোনভাবেই কেউ কাটতে পারেনা

শিবগঞ্জে সরকারি গাছ বিক্রি- সরকারি গাছ কোনভাবেই কেউ কাটতে পারেনা

চাঁপাই সংবাদ রিপোর্ট ॥ চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে সরকারি গাছ কেটে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে এক ক্লাবের সভাপতি ও মধুমতি এনজিও’র নির্বাহী পরিচালক মাসুদ রানার বিরুদ্ধে।

শিবগঞ্জ উপজেলার বাঘিতলা এলাকার যুব উন্নয়ন ক্লাবের সভাপতি মাসুদ রানা ১১টি সরকারি গাছ বিক্রি করেন মতিউর রহমান নামের এক যুবকের কাছে। মঙ্গলবার বিকেলে ক্রেতা মতিউর রহমান গাছগুলো কাটতে গেলে বিষয়টি জানাজানি হয়।

পরে স্থানীয় ভুমি অফিস বিষয়টি জানতে পেরে ঘটনাস্থলে গিয়ে গাছ কাটা বন্ধ করে। কেটে ফেলা গাছগুলো জব্দ করে।

স্থানীয়রা জানায়, নদীর ধারে সরকারি খাস জায়গার নিম ও পিঠালীর ১১টি গাছ একই এলাকার শিবনারায়নপুর গ্রামের মতিউর রহমানের কাছে বিক্রি করেন ক্লাবের সভাপতি মাসুদ রানা।

মঙ্গলবার বিকেলে ৫টি গাছ কাটার পর বিষয়টি জানাজানি হলে কানসাট তহসিল অফিস থেকে সরেজমিনে গিয়ে গাছ কাটা বন্ধ করে দেন এবং কাটা গাছগুলো জব্দ করেন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, কেটে নেয়া গাছগুলোর উপরে মেহগনি গাছ লাগিয়ে এবং কাটা গাছগুলোর গোড়ার উপরে মাটি দিয়ে বন্ধ করে দেয় ক্লাবের কয়েকজন সদস্য। মেহগনি গাছ লাগানোর সময় ক্লাবের এক সদস্য মাসুদ জানান, বনজ গাছ গুলো কেটে এখানে মেহগনি গাছ লাগানো হচ্ছে। এ জায়গাটি দেখভাল করে ক্লাব, তাই ক্লাবের পক্ষ থেকে গাছগুলো কাটা হয়েছে।

স্থানীয় এলাকাবাসী আহসান হাবিব জানান, গাছগুলো অবৈধভাবে কাটা হচ্ছে। এটা ঠিক হয়নি। উল্টো তিনি প্রশ্ন রাখেন, গাছগুলো কাটার অনুমতি কে দিয়েছে?

অন্যদিকে ক্রেতা মতিউর রহমান জানান, ক্লাবের সভাপতি মাসুদ রানা গাছগুলো তার কাছে বিক্রি করায় তিনি এ গাছগুলো কাটছেন। এ ব্যাপারে কানসাট তহসিল অফিসের তহসিলদার মো. নুরুল ইসলাম মোবারকপুর তহসিল অফিসের বরাত দিয়ে জানান, চকহরিরাম মৌজার ১ নম্বর খতিয়ানের ১২১ নং দাগের ৩৭ শতাংশ খালের জমির উপর ১১ টি গাছ অবৈধভাবে বিক্রি করেন ক্লাবের সভাপতি ও মধুমতি এনজিও’র নির্বাহী পরিচালক মাসুদ রানা।

পরে ক্রেতা গাছগুলো কাটা শুরু করলে আমরা বিষয়টি জানতে পেরে বাধা দেয়া হয়েছে এবং কেটে নেয়া গাছগুলো জব্দ করে উর্দ্ধতন কতৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে সরকারি গাছ বিক্রেতা যুব উন্নয়ন ক্লাবের সভাপতি ও মধুমতি এনজিও’র নির্বাহী পরিচালক মাসুদ রানার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, কেটে নেয়া গাছের জায়গায় মেহগনি গাছ লাগানো হবে।সরকারি গাছ কাটার নিয়মের বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি বলেন, মিশটেক হয়ে গেছে।

শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বার্হী অফিসার সাকিব আল রাব্বি বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সরকারি গাছ কোনভাবেই কেউ কাটতে পারেনা। যারা এ ঘটনার সাথে জড়িত তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

 

Please Share This Post in Your Social Media




© All rights reserved © 2021 Chapai Sangbad

Customized BY innovativenews